বিজ্ঞপ্তি:
জাগো বাঙ্গালী টোয়েন্টিফোর ডট কমে আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম :
বেনাপোল সাদিপুরে ফেন্সিডিলসহ যুবক আটক মিরপুরে লকডাউন করা হয়েছে আরও দুটি ভবন । ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ল সাধারণ ছুটির মেয়াদ র‌্যাবের নতুন ডিজি আবদুল্লাহ আল মামুন করোনাভাইরাসে আরও ৬ জনের মৃত্যু, নতুন ৯৪, আক্রান্ত ৪২৪ বেনাপোলে কাস্টম কর্তৃক ত্রান সামগ্রী বিতরণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে রক্তাক্ত জখম। যতটুকু সাধ্য আছে সে অনুযায়ী কর্মহীন ও অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর জন্য চেষ্টা করছি ——শেখ আফিল উদ্দিন এমপি দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে সমাজের সকল বিত্তবান মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান —–শেখ আফিল উদ্দিন এমপির বেনাপোল প্রাইভেট কার একতা সমিতি’র সদস্যদের মধ্যে চাল-ডাল বিতরন শার্শা ও বেনাপোল বাজারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমান আদালতের অর্থদন্ড আদায়
যশোরে বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক ও নির্যাতন বন্ধ হয়নি

যশোরে বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক ও নির্যাতন বন্ধ হয়নি

যশোর(জেলা)প্রতিনিধিঃনির্বাচনের তফশীল ঘোষনার পরও বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক ও নির্যাতন বন্ধ হয়নি বলে অভিযোগ করেছে যশোর জেলা বিএনপি।

প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে যশোর জেলা বিএনপি’র নেত্রীবৃন্দ অভিযোগ করেছে বলেন, নির্বাচনের তফশীল ঘোষনার পরও বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক ও নির্যাতন বন্ধ হয়নি। আওয়ামী লীগের ক্যাডার ও পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। একের পর এক মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। নির্বাচনের উৎসব হওয়ার কথা থাকলেও আতংকে কেউ বাড়ি থাকতে পারছে না।

যশোর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও যশোর-৩ (সদর) আসনে বিএনপির প্রার্থী অ্যাড. সাবেরুল হক সাবু অভিযোগ করেন, গত ১ ডিসেম্বর শার্শায় বিএনপির ৪২ নেতাকর্মীর নামে গায়েবি মামলা দেওয়া হয়েছে। জেলায় ১৩জনকে আটক করা হয়েছে। জেলার বিভিন্ন এলাকায় স্থানীয় পুলিশ বিএনপি নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি হানা দিচ্ছে। তারা বিএনপি নেতাকর্মীদের কাছে মোটা টাকা দাবি করছে। বলছে, টাকা না দিলে অস্ত্র মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে। টাকা দিতে রাজি হলে পেন্ডিং নাশকতা মামলা দেওয়া হচ্ছে। হুমকি-ধামকি দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়িছাড়া করছে শাসক দলের সন্ত্রাসীরাও। সুষ্ঠু নির্বাচনে কোন পরিবেশ নেই।

যশোর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, শাসক দল ১০ বছর ধরে বিএনপির নেতাকর্মীদের নির্যাতন করছে। নির্বাচনের তফশীল ঘোষণার পর বিএনপির নেতাকমীদের আটক করা হবে না, বলে আশ্বাস দেওয়া হয়। কিন্তু সেই নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। যশোর সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। পুলিশ বাড়ি গিয়ে যোগাযোগ করতে বলছে। চাহিদা অনুযায়ী টাকা না দিলে অস্ত্র মামলায় আসামি করার হুমকিও দিচ্ছে। আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িছাড়া হওয়ার হুমকি দিচ্ছে। আর পুলিশ নেতাকর্মীদের বাজারে উঠতে নিষেধ করছে।

যশোর-১ (শার্শা) আসনের বিএনপির প্রার্থী সাবেক কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মফিকুল হাসান তৃপ্তি অভিযোগ করেন, শার্শায় গত ১ ডিসেম্বর বিএনপির ৪২ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা দেওয়া হয়েছে। ৯জনকে আটক করা হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীদের এলাকায় থাকতে দেওয়া হচ্ছে না। পুলিশ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হয়রানি করছে। নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ নেই।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি গোলাম রেজা দুলু, যুগ্ম সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুনীর আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু।

লিডনিউজ

Comments are closed.




সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত-২০১৮-এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Developed BY: AMS IT BD